নিজস্ব প্রতিনিধি->>

ফেনীতে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষায় ৩ হাজার ৬৩ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। জেলার ৬ উপজেলার ৯১১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ২৩ হাজার ৬৫৯ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে ২৩ হাজার ১১৩ জন কৃতকার্য হয়েছে। জেলায় পাশের হার ৯৭.৬৯ শতাংশ।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নূরুল ইসলাম জানান, ফেনী সদর উপজেলায় ১ হাজার ৪৫৯ জন, দাগনভূয়ায় ৪৩৪ জন, সোনাগাজীতে ৫২৩ জন, ছাগলনাইয়ায় ৩৫১ জন, পরশুরামে ১৫৪ জন ও ফুলগাজীতে ১৪২ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে।

এ জেলায় এবার অকৃতকার্য হয়েছে ৫৪৬ জন শিক্ষার্থী। প্রতিবারে মতো এবারও ফেনী সদর উপজেলায় সবচে বেশি ২৯৬ শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে।

অপরদিকে ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৫৭ জন শিক্ষার্থী। জেলার ৬ উপজেলার ১৩১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ৭ হাজার ৪১০ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে ৭ হাজার ১০৭ জন কৃতকার্য হয়েছে। জেলায় পাশের হার ৯৫.৯১ শতাংশ। ফেনী সদর উপজেলায় পাশের হার ৯৬.৬৫%, সোনাগাজী ৯৯.১৭%, দাগনভূঁঞা ৯৮.৯৭%, পরশুরামে ৯৮.৫৭%, ছাগলনাইয়ায় ৯৭.৭৯% এবং ফুলগাজীতে পাশ করেছে ৯৫.৪৫শতাংশ শিক্ষার্থী।

ফেনী সদর উপজেলায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৮৫ জন, দাগনভূয়ায় ৩২ জন, সোনাগাজীতে ৪০ জন, ছাগলনাইয়ায় ৬৬ জন, পরশুরামে ১০ জন ও ফুলগাজীতে ২৪ জন। জেলায় অকৃতকার্য হয়েছে ৩০৩ শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় সবচে বেশি ১১১ শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে।

Sharing is caring!