ফুলগাজী প্রতিনিধি->>

ফুলগাজীতে হত্যা মামলার পলাতক আসামী রবিউল হককে (৪৫) গ্রেপ্তার করে পুলিশ। রাতে পুলিশ তাকে আমজাদ হাট ইউনিয়নের দক্ষিণ তারাকুচা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে। রবিউল হকের বিরুদ্ধে নিহত মনির আহম্মদের বাবা বাদী হয়ে ফুলগাজী থানায় ২০১৮ সালে জুন মাসে একটি হত্যা মামলা রুজু করেন। রবিউল উপজেলার আমজাদ হাট ইউনিয়নের ফেনাপুস্করনী এলাকার বাসিন্দা।

ফুলগাজী থানার পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আবদুল মতিন জানান, ২০১৮ সালের ২৯ জুন মাসে উপজেলার মুন্সীর হাট ইউনিয়নের দক্ষিণ তারালিয়া গ্রামে কথিত জ্বীন হুজুর সহিদ উল্লাহ (৫৫) ঝাঁড়ফু দিয়ে পরশুরাম উপজেলার উত্তর গুথমা গ্রামের মনির আহম্মদ কে (৩৫) নাকে পোড়া মরিচ দেয়।

এসময় তিনি চিৎকার করলে কথিত জ্বীন হুজুর তাকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। পরে স্হানীয় লোকজন আহত মনির আহম্মদকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।এঘটনায় নিহত মনির আহম্মদের পিতা আবুল কালাম মজুমদার পরদিন জ্বীন হুজুর সহিদ উল্লাহ ও তাঁর সহযোগী রবিউল হককে আসামী করে ফুলগাজী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ মামলার প্রধান আসামী হুজুর সহিদ উল্লাহকে আটক করলেও সহযোগী রবিউল হক দীর্ঘদিন ধরে পলাতক ছিলেন।

ফুলগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ কুতুব উদ্দীন বলেন , রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ উপজেলার আমজাদ হাট ইউনিয়নের দক্ষিণ তারাকুচা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।দুপুরে ফেনীর বিচারিক হাকিম আদালতের মাধ্যমে আসামীকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Sharing is caring!