শহর প্রতিনিধি->>
ফেনী শহরের পাগলা মিয়া সড়কে ড্রেনে বিদ্যুত লাইনে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে আতঙ্কে এলাকাবাসী আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে।
ফেনী পৌরসভার ১১ ও ১২ ওয়ার্ডের মধ্য চাড়িপুরে পাগলা মিয়া সড়কে (হাজারী রোড) অপরিকল্পিতভাবে বিদ্যুত লাইন স্থাপন ফলে বিস্ফোরণে এমন ঘটনা ঘটছে বলে এলাকাবাসী ধারণা করছে। এ ঘটনার দুপুরে স্থানীয় এলাকাবাসী প্রতিকার চেয়ে জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুজজামানের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেছে।

স্থানীয়রা জানায়, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে ওই সড়কের ফরায়েজী সংলগ্ন চৌরাস্তায় সড়কের নিচে স্থাপিত বিদ্যুতের লাইনের ৮টি স্থানে বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের বিকট শব্দে পুরো এলাকা কেঁপে ওঠে। এতে কেউ হতাহত না হলেও একটি কুকুর শাবকের মৃত্যু হয়। এ ঘটনার দুপুরে স্থানীয় এলাকাবাসী প্রতিকার চেয়ে জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুজজামানের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করে। এছাড়া পুলিশ সুপার, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক, ফেনী পৌর মেয়র, ফেনী পল্লী বিদ্যুতের জিএম, ফেনী বাখরাবাদ গ্যাসের জিএমকে অনুলিপি প্রদান করা হয়।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, বেসরকারিভাবে নির্মিত বিসিক সংলগ্ন এলাকার ডোরিন পাওয়ার প্ল্যান্ট থেকে বিদ্যুতের শক্তিশালী লাইনটি মহিপালের পিডিবি গ্রীডে সংযুক্ত হয়। এক বছর আগে মাটির নিচ দিয়ে লাইন স্থাপন করে স্থানীয় ঠিকাদার। লাইন নির্মাণের সময় স্থানীয় বাসিন্দারা অপরিকল্পিত এই লাইন নির্মাণ কাজের করলেও ফেনী পৌরসভা ও পল্লী বিদ্যুত সমিতি কর্ণপাত করেনি। কিন্তু লাইন নির্মাণের পর থেকে পর পর দুইবার বিদ্যুতের ড্রেনে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। লাইন ত্রুটিপূর্ণ ও নিম্নমানের কাজ করায় কয়েকদিন আগেও আগুন লাগে। খবর পেয়ে স্থানীয় এলাকাবাসীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এছাড়া গ্যাস লাইনে লিকেজ থাকার কারণে বুদবুদের সৃষ্টি হচ্ছে।

তারা এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে যথাযথ কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এ ঘটনার পর থেকে ওই এলাকা জুড়ে আতংক বিরাজ করছে জনমনে। লোকজন ওই রাস্তা এড়িয়ে চলার চেষ্টা করছেন।

স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর গোলাম মেহেদী আলম রুবেল জানান, ড্রেনেজ লাইনে ত্রুটি থাকায় স্ল্যাব উল্টে বিকট শব্দ হয়। এতে স্থানীয় এলাকাবাসী ও ব্যবসায়ীদের মাঝে আতংক তৈরি হয়েছে। বিষয়টি জেলা প্রশাসনসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে।

ফেনী পৌরসভার মেয়র হাজী আলাউদ্দিন জানান, বিষয়টি অবহিত হয়ে স্থানীয় কাউন্সিলরকে পরিদর্শন করার জন্য বলেছি। এ বিষয়ে পল্লী বিদ্যুতের জিএমসহ উর্ধ্বতন ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য জানানো হয়েছে।

ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আলমগীর হোসেন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

ফেনী জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজজামান বলেন, বিস্ফোরণের খবর পেয়ে সাথে সাথে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রাণহানী ও দুর্ঘটনা এড়াতে ফেনী পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তারা ইতোমধ্যে সমস্যা সমাধানে কাজ শুরু করেছে।

Sharing is caring!