দাগনভঞা প্রতিনিধি->>
দাগনভঞা উপজেলার সিন্দুরপুর ইউনিয়নের সেকান্তরপুর সুলতান আহাম্মেদ পাটোয়ারী বাড়ির সৌদি প্রবাসী মো. আলাউদ্দিনকে তার বসতঘর থেকে উচ্ছেদের পাঁয়তারা চালিয়ে আসছে সাহাবুদ্দিন গংরা। এ বিষয়ে দাগনভ‚ঞা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েও কোনো প্রতিকার না পাওয়ায় প্রবাসীর স্ত্রী কামরুন নাহার নিরাপত্তা চেয়ে পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানায়, দাগনভ‚ঞা উপজেলার সিন্দুরপুর ইউনিয়নের সেকান্তরপুর সুলতান আহাম্মেদ পাটোয়ারী বাড়ির মো. আলাউদ্দিন দীর্ঘদিন প্রবাসে থাকেন। তিনি বিদেশের আয় রোজগার দিয়ে পৈত্রিক সম্পত্তিতে বসত গৃহ নির্মাণ করেন। গত প্রায় তিন মাস পূর্বে আলাউদ্দিন দেশে এসে স্ত্রীসহ বাড়িতে ছিলো। সে বিদেশে চলে যাওয়ায় তার স্ত্রী স্বামীর ঘরে তালা দিয়ে পিত্রালয়ে বসবাস করেন। কিন্তু সাহাবুদ্দিন, গিয়াস উদ্দিন ও মো. মিয়ন গংরা প্রবাসী আলাউদ্দিনের নিকট টাকা পাবে দাবি করে তার বসতঘরটি দখলে নেয়ার পাঁয়তারা করেন। এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে গত ১২-১০-২০১৯ইং তারিখে দাগনভ‚ঞা থানায় প্রবাসীর স্ত্রী কামরুন নাহার বাদি হয়ে এসডিআর নং- ৮৬৫/১৯ইং দায়ের করেন। কিন্তু তিনি এসডিআর দাখিল করেও কোনো প্রতিকার পায়নি। গত ৫ ডিসেম্বর দুপুরে সাহাবুদ্দিন, গিয়াস উদ্দিন ও মো. মিয়ন গংরা প্রবাসী আলাউদ্দিনের বসতঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘরে রক্ষিত ফার্নিচার, আববাসপত্র ও মূল্যবান মালামাল লুট করে নিয়ে যায় এবং ঘরের বিভিন্ন অংশে ক্ষতি সাধন করেন।
প্রবাসী আলাউদ্দিনের স্ত্রী কামরুন নাহার অভিযোগ করেন- তাদেরকে বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদের পাঁয়তারা চালিয়ে সাহাবুদ্দিন গংরা তার স্বামীর বসতঘর দখল করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। তিনি এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে পুলিশ সুপারসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সুদৃষ্টি কামনা করেন।
দাগনভ‚ঞা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসলাম সিকদার প্রবাসীর স্ত্রী লিখিত অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করছে। পারিবারিক বিরোধের জেরে এ ঘটনা ঘটতে পারে।

Sharing is caring!