দাগনভূঞা প্রতিনিধি->>
দাগনভূঞা আতাতুর্ক সরকারী মডেল হাই স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্র মাজেদুল হক (জিসান) পিটিয়ে আঙ্গুল ভেঙ্গে দিলেন শিক্ষক ইব্রাহিম খলিল উল্ল্যাহ (বড় হুজুর)।শনিবার স্কুলের বেতন দিতে গেলে লাইনে দাঁড়াতে গেলে পিছনের দিক থেকে এক ছাত্রের সাথে কথা বলার অজুহাতে শিক্ষক তাকে বেত দিয়ে পিটিয়ে ডান হাতের একটি আঙ্গুল ভেঙ্গে দেন।

ছাত্রের পিতা মামুনুল হক অভিযোগ করেন, দাগনভূঞা আতার্তুক সরকারী মডেল হাই স্কুল কিছু কিছু শিক্ষকের দৌরাত্ম্য দিন দিন বেড়েই চলেছে।যেন দেখার কেউ নেই।শনিবার তার ছেলে মাজেদুল হক (জিসান) স্কুলের বেতন দিতে গেলে শ্রেনী কক্ষে লাইনে দাঁড়াতে অবস্থায় পিছনের দিক থেকে এক ছাত্রের সাথে কথা বলায় তার ৬ষ্ঠ শ্রেনীর পড়ুয়া ছাত্রকে বেত দিয়ে পিটিয়ে আহত করে।পরে তার ছেলে বাসায় ফেরার পর তাকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে ডাক্তার এক্সরে করায় ডান হাতের একটি আঙ্গুল ভাঙ্গা দেখতে পায়।এতে করে কিছুদিন পর তার বার্ষিক সমাপনী পরিক্ষা ।সেই পরিক্ষা দেওয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।তিনি ওই শিক্ষকের বিচার দাবী করেন।

এই ব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষক ইব্রাহিম খলিল উল্ল্যাহর সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আজিজুল হক এর যোগাযোগ করা হলে তিনি এ বিষয়ে কোন অভিযোগ পাননি বলে জানান।

Sharing is caring!