সোনাগাজী প্রতিনিধি->>
সোনাগাজীতে পৃথক ঘটনায় দুই তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। একটি ঘটনায় আবু বক্কর ছিদ্দিক সাব্বির (২৬) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। অন্য ঘটনায় অভিযুক্ত সুমন নামের অপর যুবক পলাতক রয়েছেন। ওই দুই ঘটনায় সোনাগাজী মডেল থানায় পৃথক দুইটি মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার ফেনী জেনারেল হাসপাতালে দুই তরুণীর ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, সোনাগাজী পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের ফুয়াং হাউজের বাসিন্দা আবু ইউছুপের ছেলে আবু বক্কর ছিদ্দিক সাব্বির বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক তরুণীকে (২০) একাধিকবার ধর্ষণ করে। সর্বশেষ গত ১০ সেপ্টেম্বর সকালে সাব্বির তার বাড়ি ফুয়াং হাউজে ডেকে নিয়ে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে তাকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে তিনি বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানান। পরে রোববার রাতে আবু বক্কর ছিদ্দিক সাব্বিরকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন ওই তরুণী। মামলার পর রাতেই পুলিশ অভিযুক্ত সাব্বিরকে গ্রেফতার করে।

অপরদিকে আমিরাবাদ ইউনিয়নের চরডুব্বা গ্রামের রহিম উল্যাহর ছেলে মো. সুমন (২০) বিয়ের প্রলোভনে এক তরুণীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। সোমবার দুপুরে দিকে ওই তরুণী পুকুর ঘাটে গেলে সেখান থেকে তুলে নিয়ে তাকে ফের ধর্ষণ করে সুমন। এ সময় তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে। তবে বখাটে সুমন পালিয়ে যায়।

সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মঈন উদ্দিন আহমেদ জানান, দুটি ঘটনায় থানায় ধর্ষণের মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার ফেনী জেনারেল হাসপাতালে দুই তরুণীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। একটি মামলার অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর মামলার অভিযুক্তকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Sharing is caring!