ডয়েচ ভেলে->>
জার্মন ভিত্তিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম তাদের এক প্রতিবেদেনে বলেছে দক্ষিন এশিয়ার দেশ বাংলাদেশের নাগরিকরা বিশ্বের কয়েকটি দেশে ঘুরতে যাওয়ার জন্য ভিসার প্রয়োজন হয় না৷ তবে সেসব দেশে যেতে যে দেশগুলোর উপর দিয়ে যেতে হবে সেখানে ভিসা লাগতে পারে৷
চীন
চীনে ঘুরতে গেলে এখন থেকে বাংলাদেশিদের আর ভিসার প্রয়োজন হবে না৷ ঢাকা চীনা দূতাবাস জানিয়েছে, বাংলাদেশিরা এখন থেকে চীনে ‘অন এরাইভেল’ ভিসা উপভোগ করতে পারবে৷ তবে এজন্য চীনা পর্যটন সংস্থাগুলোর সাহায্য নিতে হবে বাংলাদেশিদের৷ এই ভিসায় ৩০ দিন পর্যন্ত চীনে থাকা যাবে৷
ভুটান
পাহাড়ে ঘেরা সার্কের এই দেশটি বাংলাদেশি পর্যটকদের জন্য নতুন আকর্ষণ হয়ে উঠেছে৷ ঢাকা থেকে এখন সহজেই বিমানে করে সরাসরি সেখানে যাওয়া যাচ্ছে৷ যাত্রা শুরুর আগে ভিসা জোগাড়ের কোনো ঝামেলা নেই৷
মালদ্বীপ
সার্কের এই দেশটির আয়ের একটি বড় অংশ পর্যটন৷ ইউরোপ থেকে প্রতিবছর অনেক পর্যটক সেখানে যান বেড়াতে৷ বাংলাদেশিদের জন্যও সেখানে যেতে ভিসার কোনো প্রয়োজন নেই৷

ইন্দোনেশিয়া
দ্বীপরাষ্ট্র ইন্দোনেশিয়ায় ঘুরতে যান ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়ার অনেক পর্যটক৷ এবার বাংলাদেশিদের জন্য সেখানে যাওয়ার প্রক্রিয়া সহজ করেছে সে দেশের সরকার৷ ২০১৬ সালের এপ্রিল মাস থেকে সেখানে যাওয়ার জন্য বাংলাদেশিদের আগে থেকে ভিসা নেয়ার প্রয়োজন পড়ছে না৷ তাই প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আর পাসপোর্ট নিয়ে চলে যান ইন্দোনেশিয়ায়৷ সেখানকার বিমানবন্দরে নেমেই আপনি পেয়ে যাবেন ৩০ দিনের ভিসা৷
ত্রিনিদাদ ও টোবাগো
ব্রায়ান লারার কারণে এই দেশটির সঙ্গে বাংলাদেশিরা বেশ পরিচিত৷ তাই যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী বাংলাদেশি নাগরিকরা অন-অ্যারাইভাল ভিসার সুযোগ নিয়ে সহজেই ক্যারিবীয় এই দ্বীপরাষ্ট্রটিতে ঘুরতে যেতে পারেন৷
গ্র্যানাডা
এই দেশটির ক্রিকেটাররাও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলে খেলার সুযোগ পেয়ে থাকেন৷ আন্দ্রে ফ্লেচার, ডেভন স্মিথরা এসেছেন এই গ্র্যানাডা থেকে৷ নিউ ইয়র্ক থেকে এই দেশটিতে সরাসরি বিমানে যেতে পারেন বাংলাদেশিরা৷ তাঁদের জন্য অন-অ্যারাইভাল ভিসার ব্যবস্থা আছে৷
ফিজি
অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডে বসবাসকারী বাংলাদেশি নাগরিকরা চাইলে প্রশান্ত মহাসাগরের এই দেশটিতে ঘুরতে যেতে পারেন৷ বাংলাদেশি পর্যটকদের জন্য দেশটিতে অন-অ্যারাইভাল ভিসার ব্যবস্থা আছে৷

ভানুয়াতু
দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরের এই দ্বীপ রাষ্ট্রটির সঙ্গে বাংলাদেশের একটি জায়গায় মিল আছে৷ জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের সঙ্গে আছে এই দেশটি৷ ভানুয়াতুর আয়ের একটি অন্যতম বড় অংশ আসে পর্যটন থেকে৷ বাংলাদেশিদের জন্য অন-অ্যারাইভাল ভিসার ব্যবস্থা আছে৷ অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসকারী বাংলাদেশিরা এই সুযোগ নিতে পারেন৷
সামোয়া
দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরের এই দেশটিও বাংলাদেশি পর্যটকদের জন্য অন-অ্যারাইভাল ভিসার সুযোগ দিচ্ছে৷
সেশেলস
পূর্ব আফ্রিকা থেকে প্রায় দেড় হাজার কিলোমিটার পূর্বে ১১৫টি দ্বীপ নিয়ে গঠিত এই দেশ৷ বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীরা সেই দেশে ‘ভিসা-অন-অ্যারাইভাল’ নিয়ে যেতে পারবেন৷ আরব আমিরাতে বসবাসকারী বাংলাদেশিরা এই সুযোগ নিতে পারেন৷

Sharing is caring!