শহর প্রতিনিধি->>
সোনাগাজীর মুহুরী সেচ প্রকল্পকে আকর্ষণীয় পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজজামান। মঙ্গলবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ফেনী পানি উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে ইরিগেশন ম্যানেজমেন্ট ইমপ্রুভমেন্ট প্রজেক্ট ও মুহুরী ইরিগেশন প্রজেক্টের সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এমন কথা বলেন।
জেলা প্রশাসক মো: ওয়াহিদুজজামান বলেন, ফেনীতে বিনোদনের জায়গা অনেক কম। সোনাগাজী মুহুরী প্রজেক্ট এলাকাটি আকর্ষণীয় ও সুন্দর জায়গা। এখানে মুহুরী সেতু, বায়ুবিদ্যৎকেন্দ্র সহ সবুজ বনায়ন রয়েছে। আকর্ষণীয় এ জায়গাটিকে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার বিপুল সুযোগ রয়েছে। এ এলাকায় বেশি করে গাছ লাগিয়ে পরিবেশ সুন্দর করা যায়। এতে পর্যটকরা আকৃষ্ট হয়ে ছুটির দিনে পরিবার পরিজন নিয়ে ঘুরতে আসতে উৎফুল্ল বোধ করবে।

জেলা প্রশাসক তার বক্তব্যে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, বিভিন্ন নদী ও খালে অবৈধ দখল ও বাঁধ দিয়ে পানি প্রবাহ বাধাগ্রস্থ করা হচ্ছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড যে কোন সমস্যা নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের সাথে দ্রুত বৈঠক করবেন।

জেলা প্রশাসক বলেন, মাটির নিচের পানি আল্লাহর বড় নেয়ামত। এ নেয়ামতকে আমরা অপচয় করছি।ফেনী শহরে বিভিন্ন জায়গায় অবৈধভাবে পানি উত্তোলন করে বিক্রির অভিযোগ রয়েছে। এতে পানির স্তর নিচে নামছে। ফেনী শহরে অনকে বড় বড় বিল্ডিংয়ে বেআইনিভাবে পানি উত্তোলন করা হচ্ছে। যারা এসব কাজ করছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ ও যত্রতত্র পানি উত্তোলন বন্ধ করতে হবে।

সভায় স্থানীয় সরকার বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শহীদুল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরীন সুলতানা, ফুলগাজী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম, ছাগলনাইয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া তাহের, পরশুরাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইয়াছমিন আক্তার, সোনাগাজী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত দেব, পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহুরী ইরিগেশন প্রজেক্টের ডিজিএম এস এম আবদুল মান্নানসহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Sharing is caring!