নিজস্ব প্রতিনিধি->>
নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলার রায়ে সন্তোষ জানিয়েছে তার বাবা-মা। একই সঙ্গে দ্রুত আসামিদের রায় কার্যকর এবং পরিবারের নিরাপত্তার দাবিও জানান তারা। রায়ের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় নুসরাতের বাবা একেএম মুসা সাংবাদিকদের বলেন, আদালতের আজকের রায়ের মাধ্যমে আমরা সু-বিচার পেয়েছি। এজন্য সরকার, প্রশাসন, ডিসি, এসপি, পিবিআই, গণমাধ্যমসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। আমার আদরের কন্যার মতো এমন করে যাতে আর কারো মায়ের বুক খালি না হয়। ভবিষ্যতে এই বিচার থেকে শিক্ষা নেয়া উচিত সবার। সবাইকে মনে রাখতে হবে যে, অপরাধী যেই হোন না কেন, অপরাধ করে পার পাওয়া যাবে না। দ্রুত এ রায় কার্যকরের পাশাপাশি আমার পরিবারের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানাচ্ছি।

রায়ের পর এই প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন, নুসরাতের মা শিরিন আক্তার। তিনি বলেন, আমার মেয়ে যে কোনো অপরাধ করেনি সেটি আদালতে প্রমাণ হয়েছে। আমি খুশি। আমি চাই অপরাধীদের পাপের শাস্তি হোক। আর কোনো মা যেন সন্তান হারা না হয়। সন্তান হারানোর কষ্ট অনেক বেশি। এই কষ্ট নিয়ে বেঁচে থাকা কঠিন। প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ, তিনি আমাদের কষ্ট কমানোর চেষ্টা করেছেন। অপরাধীদের বিচার করেছেন। মা হিসেবে আমি তার কাছে কৃতজ্ঞ। রায়ের পর নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান বলেন, রায়ে আমরা সন্তুষ্ট। আমরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে উনাকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। পাশাপাশি আমাদের পরিবারের নিরাপত্তা জোরদার করারও অনুরোধ জানাচ্ছি। বৃহস্পতিবার ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশীদ আলোচিত নুসরাত জাহার রাফি হত্যা মামলায় ১৬ আসামিকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন।

Sharing is caring!