ক্রীড়া প্রতিবেদক->>

ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের বাংলাদেশ স্কোয়াডে ছিলেন মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন। কিন্তু এই সফরে যাওয়া তো বহুদূর, আরও অনেক দিন ব্যাট-বলই হাতে নিতে পারবেন না তরুণ এই অলরাউন্ডার। পিঠের চোটে লম্বা সময়ের জন্য মাঠের বাইরে ছিটকে গেছেন সাইফ।

এই চোট দীর্ঘদিন ধরেই ভোগাচ্ছে সাইফকে। প্রায়ই ব্যথা করতো তীব্র, আবার অনেক সময়ই ব্যথা যেত মিলিয়ে। ব্যথা সামলেই গত মাসে খেলেছিলেন ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজে। পাশাপাশি তার পিঠের অবস্থা নিয়ে চলছিল চিকিৎসকদের পর্যালোচনা।

দীর্ঘদিনের পুরানো ও খুবই স্পর্শকাতর চোট বলে তাকে ইংল্যান্ডে পাঠানোর আলোচনাও ছিল। শেষ পর্যন্ত তার স্ক্যান রিপোর্ট পাঠানো হয় ইংল্যান্ডে। সেটির ফল জানা গেছে কয়েকদিন আগে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এখনই আবার খেলতে নামলে তার ক্যারিয়ার পড়ে যেতে পারে শঙ্কায়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছিল, ৫-৬ মাস মাঠের বাইরে থাকতে হতে পারে। তবে আপাতত, তার পরিপূর্ণ বিশ্রাম তিন মাসের।

লম্বা সময়ের জন্য ছিটকে গিয়ে স্বাভাবিকভাবেই হতাশ সাইফ। দিন গুণতে শুরু করেছেন ফেরার অপেক্ষায়।

“তিন মাস বলতে গেলে বেড রেস্ট। এক মাস হয়েই গেছে, সবশেষ তো আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলেছি। আশা করি ডিসেম্বরের শেষ দিকে ব্যাটিং শুরু করতে পারব। বোলিং আরও পরে করতে পারব, জানুয়ারির শেষের দিকে বা ফেব্রুয়ারিতে।”

“বিষয়টি খুবই হতাশাজনক যে এত লম্বা সময় মাঠের বাইরে। তবে এটি ক্রিকেটের অংশ। খুব বেশি দুর্ভাবনা না করে কিভাবে সুস্থ হতে পারি, সেটিই ভাবতে হবে।”

সাইফের বদলি হিসেবে এখনও কাউকে নেওয়া হয়নি। ১৫ জনের স্কোয়াড ছিল। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন জানিয়েছেন, ১৪ জনের দলই পাঠানো হতে পারে ভারতে। কিংবা কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ফেরার পর আলোচনা করে প্রয়োজন মনে করলে কাউকে নেওয়া হতে পারে।

Sharing is caring!