ছাগলনাইয়া প্রতিনিধি->>

ছাগলনাইয়ায় ডাকাতের গুলিতে আবদুল্লাহ আল মামুন (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এসময় মহিলাসহ একই পরিবারের আরও চারজনকে কুপিয়ে আহত করে স্বর্ণালংকার, নগদ টাকাসহ মূল্যবান মালামাল লুটে নেয় ডাকাতরা। সোমবার রাতে ছাগলনাইয়া উপজেলার পাঠাননগর ইউনিয়নের দক্ষিণ হরিপুর গ্রামের দেলু মিস্ত্রীর নতুন বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আবদুল্লাহ আল মামুন ওই বাড়ির দুবাই প্রবাসী দেলোয়ার হোসেন ওরফে দেলু মিস্ত্রীর ছেলে ও পেশায় প্লাম্বার মিস্ত্রী। ময়নাতদন্তের জন্য তার মরদেহ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।

আহতরা হলেন আবদুল্লাহ আল মামুনের মা আলেয়া বেগম (৫০), বোন ফারজানা আক্তার ববি (২২) ও ফারহানা আক্তার কলি (১৩), স্ত্রী তাছলিমা আক্তার (২০)। তারা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ছাগলনাইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

স্থানীয়রা জানায়, সোমবার মধ্যরাতে আবদুল্লাহ আল মামুনের বাড়িতে মুখোশ পরিহিতএকদল ডাকাত হানা দেয়। ডাকাত দল সিঁদ কেটে ঘরে ঢুকে সকলকে জিম্মি করে ৪টি মোবাইল ফোন ও স্বর্ণালংকারসহ ৫০হাজার টাকার মালামাল লুটে নেয়। আবদুল্লাহ আল মামুন ডাকাতদের প্রতিহত করার চেষ্টা করলে ডাকাতরা তাকে লক্ষ্য করে গুলি করে। এসময় তার মা ও বোন এগিয়ে এলে তাদেরকে কুপিয়ে আহত করা হয়। ডাকাতরা চলে গেলে স্থানীয়রা গুলিবিদ্ধ আবদুল্লাহ আল মামুনসহ আহতদের উদ্ধার করে ছাগলনাইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। গুলিবিদ্ধ আবদুল্লাহ আল মামুন ও তার মা আলেয়া বেগমকে গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসকদের পরামর্শে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাতে আবদুল্লাহ আল মামুন এর মৃত্যু হয়।

ছাগলনাইয়া থানার ওসি মো: মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ জানান, খবর পেয়ে ফেনীর পুলিশ সুপার খোন্দকার নুরুন্নবী, সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) নিশান চাকমা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। একই সাথে ডাকাতদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

Sharing is caring!