পরশুরাম প্রতিনিধি->>

পরশুরামের বক্সমাহমুদ ইউনিয়নে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) পণ্যসহ আনোয়ার হোসেন নামের এক যুবককে আটক করেছে স্থানীয় গ্রাম-পুলিশ সদস্যরা। শুক্রবার রাতে গোপনে স্থানীয় একটি বাজারে এসব পণ্য বিক্রির সময় আনোয়ার হোসেনকে আটক করা হয়।

আটক আনোয়ার হোসেনের কাছ থেকে ২৪ প্যাকেট টিসিবির পণ্য উদ্ধার করা হয়। পরে বক্সমাহমুদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল গফুর টিসিবির পণ্যসহ আনোয়ার হোসেনকে পরশুরাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয়ে নিয়ে যান।

বক্সমাহমুদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল গফুর জানান, ফুলগাজী সাহাপাড়া রুহুল আমিনের বাড়ির সামনে থেকে ওই যুবককে আটক করেন বক্সমাহমুদ ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশ সদস্য আবদুল খালেক ও শাহীদ। উদ্ধারকৃত টিসিবির পণ্যগুলো ডিলার শহিদ উল্লাহর বলে আনোয়ার হোসেন স্বীকার করছেন।

গত ২৩ জুন টিসিবির পণ্য বক্সমাহমুদ ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে ফ্যামিলি কার্ডধারীদের কাছে বিক্রি করার জন্য নির্ধারিত দিন ধার্য ছিল। উপজেলা প্রশাসনের নিয়োগকৃত বক্সমাহমুদ এলাকার টিসিবি ডিলার করিম উল্লাহ ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী শহিদ উল্লাহ ফ্যামিলি কার্ডধারীদের কাছে বিক্রি না করে গোপনে এসব পণ্য মজুত রাখেন। শুক্রবার রাত্রে বেশি দামে বিক্রির উদ্দেশ্যে টমটমে করে নিয়ে যাওয়ার সময় গ্রাম পুলিশের হাতে ধরা পড়েন।

উল্লেখ্য, এই দফায় একজন ভোক্তা সর্বোচ্চ দুই লিটার সয়াবিন তেল, দুই কেজি মসুর ডাল ও এক কেজি চিনি কিনতে পারবেন। প্রতি লিটার সয়াবিন তেল ১১০ টাকা, আর প্রতি কেজি চিনি ৫৫ টাকা ও মসুর ডাল ৬৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

পরশুরাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দা শমসাদ বেগম জানান, টিসিবির পণ্যসহ আনোয়ার নামে একজনকে আটক করে কার্যালয়ে আনা হয়েছে। এ ব্যাপারে তাঁর বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।