ফুলগাজী প্রতিনিধি->>

ফুলগাজীতে কার্যবিধির ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন। শুক্রবার দিবাগত রাতে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি থাকলে বলে জানিয়েছেন ফুলগাজী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রাফুন নাহার।

আদেশের এই চিঠিতে লেখা হয়, ২ জুলাই বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, ফুলগাজী শাখা এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি), ফুলগাজী শাখা কর্তৃক ফুলগাজী সদর ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামে বন্যা কবলিত মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি গ্রহণ করে।

আজ শুক্রবার (১ জুলাই) বিকেল ৪টায় ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচী ঘোষণাকে কেন্দ্র করে উভয় দলের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া এবং উভয় দলের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। যার পরিপ্রেক্ষিতে বেশ কয়েকজন আহত হয়। উভয় দল কর্তৃক একই সময়ে একই স্থানে ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচী থাকায় আইন-শৃঙ্খলার অবনতির আশংকা রয়েছে মর্মে অফিসার ইনচার্জ ফুলগাজী থানা অবহিত করেন এবং উক্ত স্থানে আইন-শৃঙ্খলা ভঙ্গের সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে। এজন্য শনিবার থেকে ফুলগাজী সদর ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করা হলো।

এর আগে ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচীর জন্য বিএনপির প্রস্তুতি সভায় হামলার ঘটনা ঘটে। জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আল্লাল উদ্দিন আলাল জানায় এ ঘটনায় তাদের ৩০ এর অধিক নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।

ফুলগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ মজুমদার জানান, বিএনপির নেতাকর্মীরা সদর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি নিজাম কোম্পানির ওপর হামলা চালিয়ে ৫ জনকে আহত করে। পরবর্তীতে দুই পক্ষের মধ্যে সামান্য ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়াসহ সামান্য হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ বলেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে ফুলগাজী উপজেলার দৌলতপুরে বন্যার্ত অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণে প্রধান অতিথি থাকবেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন। ছাড়াও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহবায়ক আবদুস সালাম, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অধ্যাপক জয়নাল আবেদীন ভিপি, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক(চট্টগ্রাম বিভাগ) মাহবুবুর রহমান শামীম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব জনাব রফিকুল আলম মজনু সহ কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত থাকবেন।

ফুলগাজী থারার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মঈন উদ্দিন জানান, উপজেলা প্রশাসন থেকে ১৪৪ ধারা জারির পর পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে। কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশ সতর্ক রয়েছে।