আদালত প্রতিবেদক->>
সোনাগাজীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলায় পৌরসভা ও মডেল থানার সিসিটিভি ফুটেজ তলবের আবেদন করেছে আসামী পক্ষের দুই আইনজীবী। আসামী রুহুল আমিনের পক্ষে তার আইনজীবী কামরুল হাসান গত ১ এপ্রিল থেকে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত সিসিটিভি ফুটেজ ও মকসুদ আলমের আইনজীবী গিয়াস উদ্দিন নান্নু ফুটেজ তলবের জন্য পৃথকভাবে আদালতে আবেদন করেন।
সোমবার দুপুরে ১৬ আসামীর উপস্থিতিতে আদালতের কার্যক্রম শুরু হলে ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে আইনজীবীরা তাদের আবেদনের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করেন। রাস্ট্র পক্ষের পিপি হাফেজ আহাম্মদ বিরোধীতা করলেও বিচারক মামুনুর রশিদ আসামী পক্ষের আইনজীবীদের আবেদন মঞ্জুর করেন।
একই সাথে আইনজীবী কামরুল হাসান নুসরাত অগ্নিদগ্ধ হওয়ার দিন সোনাগাজী মডেল থানায় পুলিশের পক্ষ থেকে যে সাধারন ডায়েরী (জিডি) করা হয়েছে সেটিও তলবের আবেদন করেন। শুনানী শেষে আদালত সে আবেদনও মঞ্জুর করেন।
আইনজীবী কামরুল হাসান জানান, তিনি যে আসামীদের ডিফেন্ড করেন তাদের পক্ষে সিসিটিভি ফুটেজ খুবই গুরত্বপুর্ণ। সেনাগাজী পৌরসভা এলাকার পুরোটই সিসি ক্যামেরার আওতায় রয়েছে। পৌরসভা কার্যালয় ও থানা থেকে সিসি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রন করা হয়। নুসরাত অগ্নিদগ্ধ হওয়ার আগে ও পরের সব ফুটেজ সিসি ক্যারোয় ধরা পড়বে। মামলার ন্যায় বিচারের স্বার্থে এসব ফুটেজ পাওয়া খুবই জরুরী। আদালত সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়ার আবেদন মঞ্জুর করার পর সেগুলো পাওয়া গেলে তিনি যে আসামীদের ডিফেন্ড করছেন তাদের ন্যায় বিচার পাওয়ার পথ সুগম হবে।

Sharing is caring!