দাগনভূইয়া প্রতিনিধি->>
দাগনভূঞাতে মধ্য রাতে ঘরে ঢুকে দুই পরিবারের নয়জনকে খাদ্যে চেতনা নাশক কেমিক্যাল মিশিয়ে খাইয়ে অচেতন করে স্বর্ণালংকার ও নগদ অর্থ লুট করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।বুধবার দিনগত রাতে দক্ষিণ আলীপুর গ্রামের নোয়াব মিয়ার বাড়ীর সেলিম মিয়া ও তার ভাই কুসুমের ঘরে এ ঘটনা ঘটে।এতে ২ শিশু ও ৫ নারীসহ ৯ জনকে মুমূর্ষু অবস্থায় ফেনীর ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।

ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার দক্ষিণ আলীপুর গ্রামের নোয়াব মিয়ার বাড়ীর একটি ঘরের ছাউনির টিন কেটে ঢুকে বুধবার রাতে ঘরের কোথাও লুকিয়ে ছিল দুর্বৃত্তরা। সুযোগ বুঝে পরিবারটির খাদ্যে চেতনানাশক কেমিক্যাল মিশিয়ে রাখে। যা খেয়ে রাত থেকে অচেতন পরিবারটির সকল সদস্য।

এ সুযোগে ঘরের স্বর্ণালংকার, নগদ অর্থসহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। সকালে ঘরের কারও সাড়া না পেয়ে প্রতিবেশীরা গিয়ে তাদের অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে। তারপর তাদের নিকটাত্মীয়দের খবর দিলে অচেতন সকলকে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে দাগনভূঞা থানা পুলিশ।

এর আগেও গত এক সপ্তাহে পাশের উপজেলা সোনাগাজীতে একই ধরনের দুটি ঘটনায় ৪ পরিবারের ১৫ জন আহতসহ লুট করে নিয়ে যায় তাদের সর্বস্ব।
ফেনী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাঃ আবু তাহের পাটোয়ারী জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত অজ্ঞান কারো জ্ঞান ফেরেনি। তাদের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে।

Sharing is caring!