সোনাগাজী প্রতিনিধি->>

সোনাগাজী পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকনের আয়কর নথিতে উল্লেখিত অর্থের যথার্থতা যাচাই করে রির্পোট প্রদান করার জন্য সোনাগাজী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট চিঠি দিয়েছে দূনীতি দমন কমিশন (দূদক)।

দূনীতি দমন কমিশনের (দূদক) প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো: সাইদুজ্জামান স্বাক্ষরিত স্মারক নং-০০.০১.০০০০.৫০২.০৩.০১৮.২১. ১০৬১৩ গত ২০ এপ্রিল ২০২২ তারিখে ইস্যুকৃত চিঠির মাধ্যমে আগামী ৭ কার্য দিবসের মধ্যে সরেজমিন পরিদর্শন করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে প্রাপ্ত তথ্যদি জানাতে অনুরোধ করা হয়।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম খোকন কর্তৃক ২০১৬-২০১৭ করবর্ষ হতে ২০২০-২০২১ করবর্ষ পর্যন্ত ৪৬,৪২৫৯১/-টাকা (গাছ, মাছ, নারিকেল, সুপারি) বিক্রয় করে উপার্জন করেছেন মর্মে আয়কর নথিতে উল্লেখ করেছেন। তার স্ত্রী তাসলিমা কাউসার সোনাগাজী এগ্রো/মেসার্স তসলিমা ডেইরী ফার্ম, সোনাগাজী ফেনী কতৃর্ক ২০১৯-২০২০ করবর্ষ হতে ২০২১-২০২২ করবর্ষ পর্যন্ত গৃহপালিত হাসঁ, মুরগী , কবুতর এবং ব্যবসার মাধ্যমে ৩১ লাখ ২০ হাজার টাকা মুরগী র্ফামের ব্যবসার মাধ্যমে ৬ লাখ ৩৯ হাজার টাকা, ডেইরী ফার্মের ব্যবসার মাধ্যমে ১০ লাখ ৭০ হাজার ৮শ ৩৪ টাকা এবং মৎস্য চাষ হতে ২৫ লাখ ২২ হাজার ৪শ টাকা উপার্জন করেছেন মর্মে আয়কর নথিতে উল্লেখ করেছেন।

উল্লেখিত খাত সমূহের ব্যবসার সঠিকতা ও যথার্থতা যাচাইয়ের নিমিত্তে টীম গঠন পূর্বক সরেজমিন যাচাই করে আয়কর নথিতে উল্লেখিত খাত সমূহ হতে প্রদর্শিত অর্থ আয় করা সম্ভব/ বাস্তব সম্মত কিনা তা রির্পোট প্রদান করতে বলা হয়।

পৌর মেয়রের বিষয়ে দূদক কর্তৃক চিঠি প্রাপ্তির বিষয়টি স্বীকার করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মঞ্জুরুল হক। তদন্ত টীম গঠন করে কার্যক্রম চলছে বলেও জানান ইউএনও।