শহর প্রতিনিধি->>

ফেনীতে মঙ্গল শোভাযাত্রার মাধ্যমে বাংলা নববর্ষকে বরণ করেছে জেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার (১৪ এপ্রিল) সকালে ফেনী সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্র বের হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান সড়ক ট্রাংক রোড প্রদক্ষিণ করে ফেনী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে মুক্তমঞ্চে গিয়ে শেষ হয়।

শোভাযাত্রায় জেলা প্রশাসক আবু সেলিম মাহমুদ উল হাসান, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক ড. মো. মঞ্জুরুল ইসলাম, ফেনী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বিমল কান্তি পাল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) গোলাম জাকারিয়া, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. মাসুদুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাদিয়া ফারজানা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আজগর আলী, ফেনী সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাসরীন সুলতানা, জেলা তথ্য কর্মকর্তা রেজাউল রাব্বী মনির, জেলা কালচারাল অফিসার এটিএম কামরান হাসান, আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা জিপি প্রিয়রঞ্জন দত্তসহ সাংস্কৃতিক সংগঠক, কবি-সাহিত্যিক, সাংবাদিক, প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন সংগঠন ও শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধি ব্যক্তিরা অংশ নেন।

উৎসবমুখর পরিবেশের শোভাযাত্রায় অংশ নেয় বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন।

শোভাযাত্রা শেষে বালিকা বিদ্যালয়ে মুক্তমঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জেলা শিল্পকলা একাডেমি। শুরুতে মঞ্চে শিল্পীরা এসো ‘হে বৈশাখ, এসো হে’ গানে মুখরিত হয়ে বাংলার নববর্ষকে বরণ করে নেয়। বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে লোকজ মেলার আয়োজন করা হয়।

জেলা প্রশাসক আবু সেলিম মাহমুদ-উল হাসান বলেন, “দুই বছর বিরতির পর আবারও এই আয়োজন শুরু হয়েছে বলে খুব ভালো লাগছে। এ ধরনের আয়োজনকে আরও উচ্ছ্বসিত করতে হবে। নতুন প্রজন্মের মাঝে বিস্তৃত পরিসরে ছড়িয়ে দিতে হবে। তাহলেই বাঙালি সংস্কৃতির পূর্ণতার পরিসরও বহুমাত্রায় উদ্ভাসিত হবে।”