শহর প্রতিনিধি->>

ফেনীতে অজ্ঞান করে ছিনতাইকালে সাত লাখ টাকাসহ মলমপার্টির চার সদস্যকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা। বুধবার (১৩ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ফেনীর মহিপালের একটি হোটেলে ব্যবসায়ীকে অজ্ঞান করে টাকা ছিনতাইকালে তাদের আটক করা হয়।

আটকরা হচ্ছেন-বরিশালের উজিরপুর উপজেলার নরসিংহা গ্রামের হাওলাদার বাড়ির হাবিবুর রহমানের ছেলে সৈকত (৩০), নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলার কালুয়াই গ্রামের আনু মিয়ার ছেলে শহিদুল ইসলাম (৪০), সেনবাগ উপজেলার জামালপুর গ্রামের মহাজনবাড়ির আবুল হাসেমের ছেলে রুবেল হোসেন সাদ্দাম (৩২) ও একই উপজেলার পদুয়া গ্রামের মনসুর আহমেদের ছেলে মিজানুর রহমান বাবুল (৪২)।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, বিকেলে সীতাকুণ্ডের পাইকারি বাজারে তরমুজ বিক্রি করে নিজ গ্রামে ফিরছিলেন লক্ষ্মীপুরের মিরাজ হোসেন। পথে ফেনীর মহিপালে আলমাস হোটেলে ইফতার করতে নামেন। এসময় হঠাৎ ওই চার ব্যক্তি মিরাজের টেবিলে বসে তার সঙ্গে ইফতার করতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। একপর্যায়ে ইফতারের সামগ্রী মাখানোর সময় তারা চেতনানাশক মিশিয়ে দেন।

ওই ইফতারি খেয়ে মিরাজ অজ্ঞান হয়ে পড়েন। এসময় তারা সাত লাখ টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে সটকে পড়ার চেষ্টা করেন। যাওয়ার সময় উপস্থিত লোকজন তাদের আটক করে পুলিশে খবর দেন।

ফেনী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুর রহিম সরকার জানান, আটক চার ব্যক্তি অজ্ঞান পার্টির সক্রিয় সদস্য। তাদের বিরুদ্ধে মামলা করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।