সদর প্রতিনিধি->>

ফেনী সদর উপজেলায় চলতি বোরো মৌসুমে আউশের প্রণোদনা পেলো ১ হাজার ৮শত ৮০জন কৃষক। বুধবার (১৩ এপ্রিল) ফেনী সদর উপজেলায় প্রণোদনার বীজ ও সার বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাসরীন সুলতানার সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদ চত্বরে বিভিন্ন ইউনিয়নের কৃষকের হাতে এই বীজ ও সার তুলে দেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শুসেন চন্দ্র শীল।

এসময় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারাম্যান এ কে শহীদ উল্যাহ খোন্দকার, মহিলা ভাইস চেয়ারাম্যান জোসনা আরা জুসি। স্বাগত বক্তব্য রাখেন- উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শারমীন আক্তার।

কৃষি কর্মকর্তা সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আহসান হাবীব, উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মনছুর আহম্মদসহ উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রণোদনাপ্রাপ্ত ১ হাজার ৮শত ৮০ জন কৃষককে দেওয়া হয়েছে চৌদ্দ লাখ ৬৪ হাজার ৭৫০ টাকার বীজ ও সার। প্রত্যেক কৃষক পাঁচ কেজি আউশ ধানের বীজ, ২০ কেজি ডাই অ্যামোনিয়াম ফসফেট (ডিএপি) ও ১০ কেজি মিউরেট অব পটাশ (এমওপি) সার পেয়েছে।

ফেনী সদর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ১২ ইউনিয়নের আউশচাষিদের মধ্য থেকে ১ হাজার ৮শত ৮০জন কৃষকের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে শর্শদিতে ৫০ জন, পাঁচগাছিয়ায় ১০০ জন, ধর্মপুরে ৫০ জন, কাজিরবাগে ৮০ জন, কালিদহে ১৫০ জন, বালিগাঁও ৩৫০ জন, ধলিয়ায় ৩৫০ জন, লেমুয়াতে ১৫০ জন, ছনুয়ায় ১৫০ জন, মোটবীতে ১৫০ জন, ফাজিলপুরে ১৫০ জন ও ফরহাদনগরে ১৫০ জন কৃষক প্রনোদনা পেয়েছেন।

উপজেলা কৃষি কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রণোদনা হিসেবে ব্রি ধান-৪৮ দেওয়া হয়েছে কৃষকদের। পাঁচ কেজি বীজে এক বিঘা জমি বপন কিংবা রোপণ করা যাবে। যাতে প্রতি বিঘায় ১৬ মণ করে ফলন হবে বলে আশা করা হচ্ছে। যাদের প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে তাঁদের অধিকাংশ কৃষক নিয়মিত আউশের আবাদ করেন বলে উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তাদের দাবি।

সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শারমীন আক্তার বলেন, ‘আউশে প্রণোদনা দেওয়ার মাধ্যমে ধানের আবাদে একধাপ এগিয়ে গেল। এতে চাষিদের মধ্যে আগ্রহ বাড়বে। যারা নিয়মিত আউশের আবাদ করেন তাঁদেরই প্রণোদনার বীজ ও সার দেওয়া হয়েছে।’