শহর প্রতিনিধি->>

ফেনীতে পুলিশের পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় কনস্টেবল নিহতের ঘটনায় কাভার্ড ভ্যানের চালক মো. জাফর উদ্দিন (৩২) কে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। ঘটনার ১৮ ঘণ্টা পর মঙ্গলবার রাতে তাঁকে নোয়াখালী জেলার সেনবাগ উপজেলার দক্ষিণ রাজারামপুর গ্রামের বাসিন্দা জুয়েলের বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। চালক জাফর ওই বাড়িতে আত্মগোপনে ছিলেন।

গ্রেপ্তার মো. জাফর উদ্দিন নোয়াখালী জেলার সেনবাগ উপজেলার রাজারামপুর গ্রামের মো. সাহাব উদ্দিনের ছেলে।

র‍্যাব-৭ ফেনী ক্যাম্পে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার জানান, গত আট বছর তিনি ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়াই শুধু শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়ে মহাসড়কে কাভার্ড ভ্যান চালাচ্ছিলেন। হাসপাতালে ওই চালকের ডোপ টেস্ট করা হলে পজিটিভ পাওয়া যায়। দুর্ঘটনার সময় তিনি নেশাগ্রস্ত ছিলেন।এর আগে তাঁর ড্রাইভিং সিটের নিচে তল্লাশি করে দুই পুরিয়া গাঁজা পাওয়া যায়।

তিনি আরও জানান, গত সোমবার রাত তিনটার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কর্তব্যরত হাইওয়ে টহল পুলিশের পিকআপ ভ্যানের পেছনে একটি কাভার্ড ভ্যান সজোরে ধাক্কা দিলে পুলিশ কনস্টেবল মোতাহের হোসেন (২৫) পিকআপ ভ্যান থেকে ছিটকে নিচে পড়ে মারা যান। এ সময় অপর কনস্টেবল আসাদুল ইসলাম (২৫) আহত হন। তিনি বর্তমানে ফেনী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। পুলিশের পিকআপ ভ্যানের পেছনের অংশ দুমড়েমুচড়ে যায়। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

দুর্ঘটনায় কাভার্ড ভ্যানের চালকের সহকারী জয় (১৮) আহত হন। চালক জাফর সহকারীকে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে নিজে আত্মগোপন করেন।

র‌্যাবের সংবাদ সম্মলনে বলা হয়, ২০১৪ সাল থেকে জাফর উদ্দিন মহাসড়কে কাভার্ড ভ্যান চালিয়ে এলেও তাঁর ড্রাইভিং লাইসেন্স ছিল না। ২০১৯ সালে হালকা গাড়ির ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য দালালের মাধ্যমে আবেদন করেন। কিন্তু লাইসেন্স পাননি। দীর্ঘ আট বছর শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়েই কাভার্ড ভ্যান চালিয়ে আসছিলেন।