সোনাগাজী প্রতিনিধি->>

সোনাগাজীতে শিশুসহ ৮ রোহিঙ্গাকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার (১১ এপ্রিল) সকালে উপজেলার চরচান্দিয়া ইউনিয়নের সওদাগর হাট থেকে তাদেরকে আটক করে পুলিশ। রাতেই তাদের কক্সবাজারের কতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রেরণ করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন- কক্সবাজারের কতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের রমজান আলীর ছেলে নুর মোহাম্মদ (১৫), হাফেজ আহম্মদের ছেলে মো. ছাদেক (১৪), মোহাম্মদ আলীর ছেলে মো. আফছার (১৭), আবুল হাসেমের ছেলে সৈয়দ কাসেম (২৫), সৈয়দ কাসেমের ছেলে মো. রিয়াজ (৭), জাফর উল্যাহর ছেলে রমজান আলী (১৬) এবং আবদুস শুক্কুরের ছেলে মো. ফারুক (১৫)।

উদ্ধারকৃত রোহিঙ্গারা জানান, তাদের রেখে পালিয়েছে তাদের মাঝি।

পুলিশ ও রোহিঙ্গা কিশোরেরা জানায়, তারা মিয়ামার থেকে আসা কক্সবাজারের কতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা। সেখান থেকে নদী পথে গত কয়েকদিন পূর্বে স্বজনদের সাথে দেখা করতে নোয়াখালীর ভাসান চরের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যান তারা। জনৈক রুহুল আমিন মাঝি ও কাসেম মাঝির সাথে যোগাযোগ করে কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে নদী পথে ফের ট্রলার ভাড়া করেন তারা।

ভাসান চর থেকে তাদেরকে এনে তাদের সাথে থাকা মোবাইল ফোন ও নগদ ১০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে ছোট ফেনী নদীর মুসাপুর তীরে রেখে মাঝি ট্রলার নিয়ে পালিয়ে যান। তারা নিরুপায় হয়ে নদী তীরবর্তী সওদাগর হাটে অবস্থান নেন।

সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ খালেদ দাইয়্যান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ তাদেরকে উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত রোহিঙ্গাদেরকে কতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রেরণ করা হবে।