hottaনাজমুল হক শামীম,২৭ ডিসেম্বর->>

ফেনীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মাহমুদুল হক নামে এক ঔষুধ ব্যবসায়ীকে (৫৮) পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। শনিবার দুপুরে নিহতের ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারে কাছে হস্তান্তর করেছে পুলিশ। শুক্রবার সন্ধ্যায় ফেনী সদর উপজেলার কালিদহ ইউনিয়নের আলোকদিয়া এলকায় এ ঘটনা ঘটে।
নিহতের স্বজন শেখ সোহরাব হোসেন জানান, ফেনী সদর উপজেলার কালিদহ ইউনিয়নের আলোকদিয়া গ্রামের ঔষুধ ব্যবসায়ী মাহমুদুল হকের সাথে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিলো আপন ভাতিজা মোহাম্মদ পলাশের। শহরের তুলাবাড়িয়াস্থ আরামবাগ এলাকার পাটোয়ারী ভবন সংলগ্ন ১০ ডিসিমেল জমি মাহমুদুল হকসহ চার ভাইয়ের মধ্যে ভাগবাটোয়ার হলেও ছোট ভাই মৃত সাদেক হোসের ছেলে পলাশ তার জেঠা মাহমুদুল হক’র স্বাক্ষর জাল করে জমিটি বিক্রী করে দেয়। এ নিয়ে বিরোধ চলা অবস্থা শুক্রবার ক্রয়কৃত জমির মালিক ওই জায়গায় ঘরতুলতে গেলে মাহমুদুল হক বাধা দেয়। এসময় ভাতিজা পলাশের নেতৃত্বে জমির ক্রেতা নুরুর জামান মাহমুদুল হককে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। খবর পয়ে স্বজনা আহত মাহমুদুল হককে একটি বেসরকারী ক্লিনিকে ভর্তি করালে কর্তব্যরত চিকিৎসরা তাকে মৃত্য ঘোষনা করে। পরে নিহতের স্বজনরা থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) গোতম চন্দ্র দে জানান, নিহত মাহমুদুল হক’র পরিবারের পক্ষ থেকে পলাশসহ কয়েকজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে। এদিকে লাশের ময়নাতদন্তে মাথা, গলা, বাহু ও হাটুসহ একাধিক স্থানে জখমের আলামত পেয়েছে পুলিশ। ময়নাতদন্তের পুরো প্রতিবেদন হাতে পেলে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত করে বলা যাবে। তিনি আরো জানান, মামলার আসামীদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

Sharing is caring!