দদদদদদ

নাজমুল হক শামীম, ২৭ অক্টোবর–>>

ফেনীতে সন্ত্রাসীদের হাতে নির্যাতনের অপমান সহিতে না পেরে আবদুল মমিন জুয়েল (২২) তার মেস কক্ষের সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলে আত্নহত্যা করেছে। সোমবার দুপুরে শহরের হাসপাতাল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত জুয়েল জেলার ফুলগাজী উপজেলার আমজাদ হাট ইউনিয়নের আবদুল মালেকের ছেলে। সে বেসরকারী কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইনষ্টিটিউট অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি (আইসিএসটি) আর্কিটেকচার ইঞ্জিনিয়ারিং (স্থাপত্ত বিভাগ) বিষয়ের ৬ষ্ট পর্বের শিক্ষার্থী ছিল।
ফেনী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহবুব মোরশেদ জানান, স্থানীয় সন্ত্রাসীরা চাঁদার দাবিতে আইসিএসটি’র শিক্ষার্থী আবদুল মমিন জুয়েলকে সোমবার তার মেস কক্ষ থেকে তুলে মারধর করে। চাঁদা দিতে না পারায় ও সন্ত্রাসীদের মার সহ্য করতে না পেরে দুপুরে জুয়েল ফেনী সদর হাসপাতাল মোড়ের রোকেয়া মঞ্জিলের চতুর্থ তলার তার নিজ কক্ষে সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলে আত্নহত্যা করে। মৃত্যুর আগে জুয়েল তার ফেইসবুকে লিখে যায়, ‘আমি নেটওয়ার্কের বাহিরে চলে যাচ্ছি, বাঁচতে দিলনা টাকা…’।
খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ফেনী সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করে। বিকেলে ময়না তদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
পুলিশ জানায়, পরিবারের পক্ষ থেকে কারো বিরুদ্ধে মামলা করা হলে তদন্ত সাপেক্ষ ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদের আটক করতে চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

Sharing is caring!