jjjttt
সৌরভ পাটোয়ারী : ৮ আগষ্ট ,২০১৪
ফেনী জেল হাজতে বৃহস্পতিবার রাতে এতিম আলী মিয়া ধন (৩৫) নামে এক যুবদল নেতা মৃত্যু হয়েছে।

তিনি দাগনভূইয়া উপজেলার পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

পরিবারের দাবি পুলিশি নির্যাতন ও বিনা চিকিৎসায় ওই নেতার মৃত্যু হয়েছে।

ফেনী জেল সুপার দিদারুল আলম জানান, জেলে থাকা অবস্থায় দিবাগত রাত দেড়টার দিকে তার বুকে প্রচন্ড ব্যথা অনুভব করে। পরে তাকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

ডাক্তার জানান হৃদযন্ত্রেক্রিয়া বন্ধ হয়ে এতিম আলী মিয়া ধন মারা গেছে। গত ২২ জুলাই অজ্ঞাত মামলায় দাগনভূইয়া থানার এএসআই হেলাল এতিম আলী মিয়াধনকে গ্রেফতার করে।থানায় তার বিরুদ্ধে সুনিদিষ্ট কোনো অভিযোগ নেই।

দাগনভূইয়া থানার এএসআই হেলাল জানান, মিয়াধন ডাকাতির জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল এমন একটি মামলা দেওয়া হয়। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

ফেনী পৌর বিএনপির সভাপতি আলা উদ্দিন আলাল জানান, এতিম আলী মিয়াধন কাছে পুলিশ মোটা অংকের চাঁদা দাবি করা হয় তা দিতে না পারায় নির্যাতন করে তাকে মারা হয়েছে। একই দাবী করেন নিহতে স্ত্রী বিবি হাজেরা তিনি বলেন এ এস আই হেলাল তার কাছে এক লক্ষ টাকা দাবী করেন টাকা না দিতে পারায় তার স্বামী কে দাগনভূঞা থানায় রেখে দুই দিন ধরে অমানবিক নির্যাতন করে এবং তিনি আরও জানান তার স্বামীর শরীরে বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

দাগনভূইয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল ফয়সল জানান, তাকে নিয়াতন করা হয়নি। চাঁদা দাবি কথা তিনি অস্বীকার করেন।

এতিম আলী মিয়াধন দাগনভূইয়া পৌরসভার আলাইয়ারপুর আবদুল গফুরের ছেলে। তিনি ১নং ওয়ার্ডের যুবদলের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছিলেন।

Sharing is caring!